খেতে মুচমুচে স্বাদে দারুণ ‘ইলিশ করলা ভাজা’ - Lakshmipur News | লক্ষীপুর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Breaking


Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Wednesday, December 27, 2017

খেতে মুচমুচে স্বাদে দারুণ ‘ইলিশ করলা ভাজা’

ইলিশ মাছ তো আমরা কতোই খেয়ে থাকি। করলা ভাঁজাও সবার বেশ পছন্দের খাবার। কিন্তু ভিন্ন ধর্মী এই ইলিশ করলা ভাজা কি কখনো খেয়েছেন? নিশ্চয়ই না। জানাও নেই রেসিপি,তবে দেখে নিন কিভাবে রান্না করবেন ‘ইলিশ করলা ভাজা’।

উপকরণ: ১।ইলিশের মাথা ও লেজ-১ টি , ২।করলা-৪ টা (ছোট সাইজ), ৩।আলু-২ টা (মাঝারি সাইজ), ৪।পেয়াজ কুচি-২ টেবিল চামচ, ৫।কাঁচা মরিচ ফালি-১২ টা, ৬।হলুদ গুড়ো-১ চা চামচ, ৭।লবন-স্বাদ মতো, ৮।জিরা-সামান্য, ৯।তেল-২ টেবিল চামচ।

প্রণালী: ১।করলা ও আলু ছেকচি করে নিন। ভাল করে ধুয়ে পানি ঝরাতে দিন। পানি ঝরে গেলে ১ চা চামচ লবন দিয়ে চটকে রাখুন।

২।ইলিশের মাথা ও লেজ পরিষ্কার করে লবন হলুদ মাখিয়ে রাখুন। কড়াইতে তেল দিন। তেল গরম হলে পেয়াজ কুচি ও কাঁচা মরিচ ফালি দিয়ে নাড়ুন। সাবধানে নাড়ুন কারণ কাচা মরিচের বীজ ছিটতে পারে। অথবা কাঁচা মরিচ প্রথমে দেওয়ার দরকার নাই। পেয়াজ হালকা ভাজা হলে এর মধ্যে জিরা দিন। পেয়াজ সোনালী রঙ হলে হলুদ গুড়ো দিয়ে দিন। লবন মাখানো আলু ও করলা ভাল করে চিপে পানি বের করে কড়াইতে দিন। নাড়তে থাকুন। হলুদ মিশে গেলে চুলার আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিন।

৩।মাঝে মাঝে ঢাকনা তুলে নাড়ুন। যদি কাঁচা মরিচ পেয়াজের সাথে না দেন তবে এখন দিয়ে দিন।  ভেজে রাখা ইলিশের মাথা ও লেজ ছোট ছোট করে কেটে নিন। খেয়াল রাখবেন ভাজি যেনো পুড়া লেগে না যায়। অল্প একটু মুখে দিয়ে দেখুন সিদ্ধ হয়েছে কিনা। সিদ্ধ হয়ে গেলে এর মধ্যে ভেজে রাখা ইলিশের মাথা ও লেজের টুকরো গুলো দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

৪।চুলার আঁচ একদম কম করে কিছু সময় ভাজি ঢাকা দিয়ে রাখুন। এতে সম্পূর্ণ ভাজিতে ইলিশের গন্ধ ছড়িয়ে যাবে। ঢাকনা খুলে নেড়ে দিন। ভাজি মচমচে হলে নামিয়ে নিন। উপর থেকে ধনে পাতা কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

পরোটা বা গরম ভাতের সাথে খুব ভাল লাগবে। ভাজি ঠান্ডা হয়ে গেলে মচমচে ভাব চলে যাবে ও করলার তিতা ভাব ফিরে আসতে পারে।

বি:দ্র: খাওয়ার সুবিধার্তে চাইলে আগে থেকে ইলিশ মাছের কাটা বেঁছে নিন। ইলিশের মাথা ও লেজে প্রচুর কাঁটা থাকে। সমস্ত ভাজিতে কাটা ছড়িয়ে গেলে খেতে সমস্যা হতে পারে।

ভাজি নামানোর আগে লবন ঠিক আছে কিনা দেখুন। মাছ মেশানোর পূর্বে লবন দেখে লাভ নেই, কারণ মাছে লবন থাকবে। এতে লবন কম বা বেশি হতে পারে। তাই ঠিক নামানোর ৩-৫ মিনিট পূর্বে লবনের পরিমাণটা দেখে নিন।

Post Top Ad

Responsive Ads Here