সাকিবের ফিটনেস টেস্ট - Lakshmipur News | লক্ষীপুর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Breaking


Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Wednesday, November 11, 2020

সাকিবের ফিটনেস টেস্ট


এক বছর মাঠে ছিলেন না। পরিবারের সঙ্গে কাটিয়েছেন ছুটির আমেজে। শেষ দিকে দিন কয়েক অনুশীলন করেছিলেন; তাও মাঝপথে আবার চলে গিয়েছিলেন। এতদিন ক্রিকেটের বাইরে থাকার পরও সেই সাকিব আল হাসান ফিটনেসে পরীক্ষায় পেছনে ফেলে দিয়েছেন সবাইকে। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট উপলক্ষে করা ফিটনেস টেস্টে অবাক করা পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি। সর্বোচ্চ স্কোর ১৩.৭ বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের।

সাকিবের ফিটনেস টেস্ট দেওয়ার কথা ছিল গত সোমবার। কিন্তু ওইদিন অধিক সংখ্যক ক্রিকেটার টেস্ট দেওয়াতে গণজমায়েত এড়ানোর জন্য টেস্ট দেননি বাংলাদেশের পোস্টার বয়। এই দুইদিন ছিলেন জাতীয় দলের ফিজিক্যাল ট্রেইনার তুষার কান্তির তত্ত্বাবধানে। আজ বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে ফিটনেস টেস্ট দিয়েই তিনি যে সেরা এটা আবারও প্রমাণ করলেন।

এর আগে সর্বোচ্চ স্কোর ১৩.৪। প্রথমদিন এই সর্বোচ্চ স্কোর গড়েন নিহাদুজ্জামান। একই দিন ব্যাটসম্যান রবিউল ইসলাম রবি তোলেন ১৩। গতকাল দ্বিতীয় দিন বিপ টেস্টে পেসার মেহেদী হাসান তোলেন ১৩.৬। এ ছাড়া আশরাফুল-রাজ্জাকরাও পাস করে যান। পাস করতে পারেননি নাসির হোসেন-সোহাগ গাজীরা।

জাতীয় দল ও এইচপি দলের বাইরে ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্ট নিচ্ছে বিসিবি। অন্যরা বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপসহ অনুশীলনের মধ্যে থাকলেও এসব ক্রিকেটার খেলার বাইরে ছিলেন। এ জন্য বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে খেলার জন্য ফিটনেস পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ড। সেই মোতাবেক গত সোমবার থেকে আজ পর্যন্ত টেস্ট নেওয়া হচ্ছে। এতে অংশ নিচ্ছেন প্রায় ১১৪ জন ক্রিকেটার।

টি টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে খেলবে পাঁচটি দল। পাঁচটি দলের জন্য ইতিমধ্যে পাঁচটি স্পন্সরও ঠিক হয়ে গেছে। স্পন্সরের নাম অনুযায়ী গড়া হয়েছে দলও। পাঁচটি দল হলো- ফরচুন বরিশাল, বেক্সিমকো ঢাকা, মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী, জেমকন খুলনা ও গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম। ১২ নভেম্বর ড্রাফটের মাধ্যমে দলগুলোর খেলোয়াড় ঠিক করা হবে। পুরো টুর্নামেন্ট দেখা যাবে টি-স্পোর্টসে।

Post Top Ad

Responsive Ads Here