ডিম ভিন্ন স্বাদে - Lakshmipur News | লক্ষীপুর নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Breaking


Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Monday, January 11, 2021

ডিম ভিন্ন স্বাদে


ডিম ভাজার ঘ্রাণ নাকে লাগলে ঘুরে তাকায় না, এমন বাঙালি মনে হয় খুঁজে পাওয়া মুশকিল। পেঁয়াজ, মরিচ আর হালকা ধনেপাতাকুচি দিয়ে ডিমের অমলেট বা তার বাঙালি সংস্করণ মামলেট থাকলে খাবার পাতে আর কিছু না হলেও চলে। অথবা সকালের নাশতায় গোলমরিচের গুঁড়া ছিটানো হালকা ভাজা সানি সাইড আপ কিংবা সন্ধ্যায় অফিসফেরত সময়ে শর্ষের তেল, পেঁয়াজকুচি আর বিট লবণ দেওয়া মোড়ের দোকানের সেদ্ধ ডিম—বাঙালি জীবনে ডিম যে কতভাবে জড়িয়ে আছে, তার হিসাব সত্যি মেলা ভার।


প্রতিদিনের খাবারে ডিমের উপস্থিতি নিশ্চিত করা প্রয়োজন খাবার টেবিলে। কিন্তু প্রতিদিন তো আর একই রেসিপি ধরে ডিম খাওয়া যায় না, তাই একটু অন্য রকম করতেই হয় কখনো কখনো। তাহলে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে প্রতিদিন ডিম খেতে বিরক্ত লাগবে না।


স্লাইসড বিফ র‌্যাপড ইন অমলেট

উপকরণ

গরুর মাংস পাতলা স্লাইস করে চীনা কায়দায় ভেলভেটিং করা ১ কাপ, দেশি পেঁয়াজ অর্ধেক কেটে ভাঁজ খোলা ১ কাপ, আদাকুচি ১ চা-চামচ, রসুনকুচি ১ চা-চামচ, শুকনা মরিচ ২টি, ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ, সয়া সস ১ চা-চামচ, চিলি ব্যাক বিন সস ১ টেবিল চামচ, সেসামি অয়েল ২ চা-চামচ, চিনি ৩ চা-চামচ, হাঁসের ডিম ২টি, রান্নার তেল ২ কাপ, অ্যারারুট ৬ চা-চামচ, লবণ আধা চা-চামচ।


প্রণালি

ভেলভেটিং করা মাংসে ২ চা-চামচ অ্যারারুট, ১ চা-চামচ লবণ, ১ চা-চামচ চিনি মাখান।


কড়া আঁচে ১ কাপ রান্নার তেল গরম করুন। মাংস ডোবা তেলে হালকা ভাজুন। বেশি ভেজে মচমচে করবেন না, গোলাপি রং চলে গেলেই তুলে ফেলুন।


কড়া আঁচে আরেকটি কড়াইয়ে ৩ টেবিল চামচ তেল গরম করুন। তেলে শুকনা মরিচ ছিঁড়ে দিন। একটু ভাজা হলে আদাকুচি ও রসুনকুচি দিয়ে ভাজুন। ভাঁজ খোলা পেঁয়াজ দিন।


পেঁয়াজ একটু নরম হলে মাংস দিন। ওয়েস্টার সস, চিলি ব্যাক বিন সস, সয়া সস, লবণ ও চিনি দিয়ে ২ থেকে ৩ মিনিট নাড়ুন। গরম হয়ে উঠলে আধা কাপ পানিতে ৩ চা-চামচ অ্যারারুট গুলে নিন। গোলানো অ্যারারুট মাংসে ঢালুন।


ঝোল ফুটে ঘন হয়ে এলে ২ চা-চামচ সেসামি অয়েল দিয়ে নাড়ুন ও পরিবেশন পাত্রে রাখুন।


হাঁসের ডিম, ১ চা-চামচ অ্যারারুট ও আধা চা-চামচ লবণ একসঙ্গে ফেটান।


কড়া আঁচে বড় ফ্রাইং প্যানে তেল গরম করুন। তেলের পরিমাণ এমন হবে, যেন অমলেট আধা ডোবা তেলে ভাজা হয়। আধা ডোবা তেলে অমলেট ভাজুন। ভাজা অমলেটটি রান্না করা মাংসের ওপর বসিয়ে দিন।


কড়া আঁচে আলাদা কড়াইয়ে ১ টেবিল চামচ রান্নার তেল গরম করুন। ১ চা-চামচ ওয়েস্টার সস, ১ চা-চামচ চিলি ব্যাক বিন সস, কোয়ার্টার চা-চামচ লবণ, আধা চা-চামচ চিনি দিয়ে ২ থেকে ৩ মিনিট নাড়ুন।


এবার ১ টেবিল চামচ অ্যারারুট কোয়ার্টার কাপ পানিতে গুলে কড়াইয়ে দিন। ঝোল ফুটে ঘন হলে বাকি সেসামি অয়েল ঢেলে দিন।


এই ঝোল মাংস ঢেকে রাখা ডিমের ওপর ছড়িয়ে দিন। গরম-গরম পরিবেশন করুন।



ডিম চিংড়ি

উপকরণ


সেদ্ধ করা মুরগির ডিম ৬টি, চিংড়ি (ছোট) ১ কাপ, মুরগির মাংসের কিমা ১০০ গ্রাম, বেরেস্তা ১ বাটি, আদা, রসুনবাটা ৩ টেবিল চামচ, ধনেগুঁড়া ১ চা-চামচ, জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ, বাদামবাটা দেড় চা-চামচ, কাশ্মীরি মরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ, হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ, টমেটো পিউরি ১ চা-চামচ, তেল ৩ টেবিল চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ ও লবণ পরিমাণমতো।


প্রণালি

কড়াইয়ে তেল দিয়ে সেদ্ধ করা ডিমগুলোতে সামান্য হলুদে মাখিয়ে অল্প ভেজে তুলে রাখতে হবে। এরপর কড়াইয়ে আবারও তেল গরম করে মুরগির কিমা দিয়ে অল্প পরিমাণ হলুদ ও রসুনবাটা আর সামান্য লবণ দিয়ে কষিয়ে তুলে রাখতে হবে। এই তেলেই চিংড়ি হালকা ভেজে নিতে হবে। এবার কড়াইয়ের তেলে একে একে বেরেস্তা, আদা-রসুনবাটা, ধনেগুঁড়া, টমেটো পিউরি, হলুদ ও কাশ্মীরি মরিচের গুঁড়া দিতে হবে। এরপর সব একসঙ্গে কষাতে হবে। এই কষানো মসলায় কিমা ও চিংড়ি দিয়ে আবারও ভালো করে কষাতে হবে। তেল ছেড়ে এলে এর মধ্যে গরমমসলার গুঁড়া দিয়ে ভালো করে নেড়ে দিতে হবে। ২ মিনিট পর ভেজে রাখা ডিম পরিমাণমতো লবণ মাখিয়ে হালকা আঁচে রান্না করতে হবে। ঝোল ঘন হয়ে এলে ওপর থেকে ঘি দিয়ে এক-দুই মিনিট হালকা আঁচে রেখে ধনেপাতাকুচি ওপরে দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।


ডিমের স্যান্ডউইচ

উপকরণ


পাউরুটি ৬ টুকরা (মাল্টি গ্রেইন বা ব্রাউন ব্রেডও নিতে পারেন), সেদ্ধ ডিম ৩টি, মেয়োনেজ ২ টেবিল চামচ, শর্ষেবাটা (মাস্টারড পেস্ট) আধা চা-চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া স্বাদমতো, লবণ স্বাদ অনুযায়ী। এ ছাড়া চিনি ১ চা-চামচের তিন ভাগের এক ভাগ, ধনেপাতাকুচি আধা চা-চামচ, টমেটো ১টি, লেটুসপাতা দিতেও পারেন, না-ও পারেন।


প্রণালি:

সেদ্ধ ডিম একদম ছোট টুকরা করে কেটে নিতে হবে। তারপর একটা পাত্রে মেয়োনেজ, মাস্টারড পেস্ট, গোলমরিচের গুঁড়া, স্বাদ অনুযায়ী লবণ ও চিনি নিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এতে ডিমের টুকরা বা কুচি মিশিয়ে তা একটা পাউরুটির ওপরে চামচ বা ছুরির সাহায্যে সমানভাবে লাগিয়ে নিয়ে ওপরে আর একটা পাউরুটি দিয়ে হালকা করে চেপে বসিয়ে দিন। এবার ধারালো ছুরি দিয়ে পাউরুটির চারপাশের শক্ত অংশ কেটে বাদ দিয়ে তারপর আড়াআড়িভাবে ত্রিভুজাকারে বা লম্বালম্বিভাবে আয়তাকারে কেটে পরিবেশন করতে হবে। সালাদপ্রেমী হলে পাউরুটিতে ডিমের প্রলেপ দেওয়ার আগে লেটুসপাতা, পাতলা করে কাটা টমেটো দিয়ে তার ওপরে ডিমের প্রলেপ দিয়েও স্যান্ডউইচ তৈরি করা যেতে পারে। ভিন্নতা আনতে একটু ধনেপাতাকুচিও দেওয়া যেতে পারে।


খুব বেশি স্বাস্থ্যসচেতন যাঁরা, তাঁরা মেয়োনেজ বাদ দিয়েও স্যান্ডউইচ তৈরি করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে পাউরুটির ওপর মারজারিন লাগিয়ে তার ওপর লেটুসপাতা, পাতলা করে কাটা টমেটো, পাতলা গোল করে কাটা সেদ্ধ ডিম, অল্প গোলমরিচের গুঁড়া আর লবণ ছড়িয়ে ওপরে আর একটা পাউরুটি চেপে বসিয়ে নিলেই আর এক রকমের স্যান্ডউইচ তৈরি হয়ে যাবে। হাতে সময় থাকলে শুকনা তাওয়ায় পাউরুটি হালকা সেঁকে নিয়ে স্যান্ডউইচ বানালে তার স্বাদও ভিন্ন হবে।



অমলেটের পাকোড়া

উপকরণ


অমলেটের জন্য: 


ডিম ৪টি, পেঁয়াজকুচি আধা কাপ, কাঁচা মরিচকুচি ১ টেবিল চামচ, টমেটো, ক্যাপসিকামকুচি আধা কাপ, পানিতে গোলানো অ্যারারুট ২ টেবিল চামচ, লবণ ১ চা-চামচ (বা স্বাদমতো), ইতালিয়ান সিজনিং আধা চা-চামচ, পানি আধা কাপ, গরুর কিমা আধা কাপ।


গার্লিক মেয়োনেজের জন্য: 


মেয়োনেজ ৪ টেবিল চামচ, পানি আধা কাপ, রসুনবাটা আধা চা-চামচ।


মূল রান্নার জন্য: 


ময়দা ১ কাপ, লবণ আধা চা-চামচ (বা স্বাদমতো), ঘি ১ টেবিল চামচ, পানি আধা কাপ, সুইট চিলি সস আধা কাপ, গার্লিক মেয়োনেজ, রান্নার তেল ২ কাপ।


প্রণালি

সব উপকরণ ফেটে অমলেটের গোলা তৈরি করুন।


কড়া আঁচে তেল গরম করুন। গোল চামচ দিয়ে আধা কাপ পরিমাণ ডিমের গোলা ঢেলে ছড়িয়ে আঁচ কমিয়ে দিন।


আঁচে কিছুক্ষণ ভাজা হলে অমলেট মাঝখানে কেটে দুটি অর্ধচন্দ্রাকৃতি টুকরা করুন। এবার প্রতিটি টুকরা এক পাশ থেকে মুড়িয়ে রোল করে নিন। এভাবে রোল করাই সুবিধাজনক, কারণ, আস্ত অমলেট মোড়াতে গেলে ভেঙে যায়। একটি অমলেট থেকে দুটি রোল হয়। প্রতিটি রোল দুই টুকরা করে মোট ৪ টুকরা অমলেট ভেজে তুলুন। এভাবে বাকি ডিমের গোলা দিয়ে অমলেট বানান।


সব উপকরণ একসঙ্গে ফেটে নিন।


ময়দার সঙ্গে লবণ ও ঘি মাখিয়ে ঝুরঝুরে করুন। এবার ধীরে ধীরে পানি যোগ করে ঘন গোলা তৈরি করুন। প্রয়োজন হলে আরও পানি যোগ করুন। হয়ে গেলে গরম-গরম পরিবেশন করুন।

Post Top Ad

Responsive Ads Here